1. amd477271@gmail.com : admin : প্রভাত সংবাদ
  2. mdjoy.jnu@gmail.com : dainikbangladesh : Shah Zoy
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০১:৩৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুমারখালীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মৌসুমী আক্তার প্রচারণায় এগিয়ে কুমারখালীতে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তুষারের ব্যাপক জনসংযোগ কুমারখালীর গড়াই রেল ব্রিজের নীচ থেকে এক অজ্ঞাত ব্যক্তির বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার মহাসড়কে দুর্ঘটনা হ্রাস ও নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে কুমিল্লা রিজিয়ন কর্তৃক বিশেষ অভিযানে প্রসিকিউশন ১৭০টি, থ্রি হুইলার আটক ৪০টি ও দেড় কাজি গাঁজা সহ গ্রেফতার ১ কুমিল্লা রিজিয়নের ২২ থানার পুলিশ সদস্যদের জন্য ওরস্যালাইন, গ্লুকোজ ও পানি দিচ্ছেন অতিরিক্ত ডিআইজি মো: খাইরুল আলম আতাউর রহমান আতা ভাই কে আবারো জয়যুক্ত করার লক্ষ্যে জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়টুকু দিয়ে কাজ করে চলেছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আব্দুল কুদ্দুস

কুষ্টিয়ায় প্রেমিকার বটির কোপে প্রেমিক রক্তাক্ত জখম

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১১ জুলাই, ২০২৩
  • ৫৫ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার

কুষ্টিয়া কুমারখালী পান্টি ইউনিয়নে জর্দার পাড়ায় সোমবার (১০ জুলাই) সন্ধ্যা ৭ টা ৩০ মিনিটের সময় গোরস্থান পাড়া সাইদুর ইসলাম এর ছেলে মেহেদী হাসান (২১) কে কুপিয়ে জখম করে। জর্দার পাড়া রাজু জর্দার এর স্ত্রী আমায়া খাতুন (৩০)।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, সোমবার সন্ধ্যার পর মেহেদী হাসান নামে এক যুবককে কুপিয়ে জখম করে আমায়া। মেহেদী ওয়াই-ফাই লাইনে কাজ করে সেই সুবাদে তাদের দুই জনের মধ্যে হয়তো সম্পর্ক থাকতে পারে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন বলেন, মেহেদী রাজুর স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছে।

এই বিষয়ে আমায়া খাতুন বলেন, মেহেদী দীর্ঘদিন যাবত তাকে বিরক্ত করে আসছে। সে আমাকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দিতো। সোমবার সন্ধ্যার পর আমার বাড়িতে এসে আমাকে জড়িয়ে ধরে, সেই সময় বাড়িতে আমার ছেলে ছিল। আমি আত্ম রক্ষার্থে বটি দিয়ে কোপ দিই। এই বিষয়ে রাজু জর্দার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তার মন্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মেহেদী হাসান সঙ্গে কুমারখালী হাসপাতালে কথা হয় তিনি বলেন, রাজু জর্দার এর স্ত্রী আমায়া খাতুন আমাকে ফোনে ম্যাসেজ দিয়ে তার বাড়িতে ডাকে। আমি তার বাড়িতে গেলে। আমায়া আমার পকেট থেকে টাকা নিয়ে নিলে। আমার সঙ্গে তার কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে, আমায়া বটি দিয়ে আমার কাঁদে কোপ দিলে, আমি সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে পড়ে যায় সেই মুহুর্তে বটি দিয়ে আবারো কোপ দিয়ে আমাকে রক্তাক্ত জখম করে। সেই সময় টাবু নামে এক ব্যক্তি আমাকে বাঁশের লাঠি দিয়ে পিটিয়ে বেঁধে রাখে। এর পর পুলিশ গিয়ে আমাকে উদ্ধার করে কুমারখালী হাসপাতালে ভর্তি করে।

মেহেদীর বাবা সাইদুর ইসলাম বলেন, আমার ছেলেকে রাজুর স্ত্রী বটি দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে। মেহেদীর কাঁদে ১৫ টি সেলাই লেগেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার চিকিৎসা চলছে, এই বিষয়ে এখন পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ করা হয়নি বলে জানান তিনি। মেহেদীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কুমারখালী হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য কুষ্টিয়া জেলা হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

পান্টি ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই বাবর জানান, ৯৯৯ নাইনে ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বাঁধা অবস্থায় এক যুবককে উদ্ধার করে কুমারখালী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যার পর মেহেদি নামে ছেলেটি রাজু জর্দার এর স্ত্রী আমায়া খাতুন কে জড়িয়ে ধরে তারই প্রেক্ষিতে বটি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন