1. amd477271@gmail.com : admin : প্রভাত সংবাদ
  2. mdjoy.jnu@gmail.com : dainikbangladesh : Shah Zoy
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৬:৪৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুমারখালীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মৌসুমী আক্তার প্রচারণায় এগিয়ে কুমারখালীতে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তুষারের ব্যাপক জনসংযোগ কুমারখালীর গড়াই রেল ব্রিজের নীচ থেকে এক অজ্ঞাত ব্যক্তির বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার মহাসড়কে দুর্ঘটনা হ্রাস ও নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে কুমিল্লা রিজিয়ন কর্তৃক বিশেষ অভিযানে প্রসিকিউশন ১৭০টি, থ্রি হুইলার আটক ৪০টি ও দেড় কাজি গাঁজা সহ গ্রেফতার ১ কুমিল্লা রিজিয়নের ২২ থানার পুলিশ সদস্যদের জন্য ওরস্যালাইন, গ্লুকোজ ও পানি দিচ্ছেন অতিরিক্ত ডিআইজি মো: খাইরুল আলম আতাউর রহমান আতা ভাই কে আবারো জয়যুক্ত করার লক্ষ্যে জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়টুকু দিয়ে কাজ করে চলেছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আব্দুল কুদ্দুস

কুষ্টিয়ায় বৃষ্টির জন্য ইসতিসকার নামাজ আদায়

  • প্রকাশিত: বুধবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৯ বার পড়া হয়েছে

 

মোঃ আনোয়ার হোসেন কুষ্টিয়া ঃ

কুষ্টিয়ায় বৃষ্টির জন্য ইসতিসকার নামাজ আদায়
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: সপ্তাহখানেক ধরে তাপপ্রবাহ চলছে। এতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। তাই তীব্র গরম থেকে রক্ষা পেতে কুষ্টিয়ার সরকারি কলেজের মাঠে বৃষ্টি জন্য ইসতিসকার নামাজ আদায় করে বিশেষ দোয়া করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

২৪ এপ্রিল বুধবার সকাল ১০টার দিকে কুষ্টিয়ার সরকারি কলেজের মাঠে এ ইসতিসকার নামাজ আদায় করের মুসল্লিরা।

ইসতিসকার নামাজ শেষে মহান আল্লাহর দরবারে বিশেষ দোয়া প্রার্থনার করে অঝরে চোখের জল ছেড়ে মোনাজাত ও ক্ষমা প্রার্থনা করেন ইমাম ও মুসল্লিরা।

নামাজে ইমামতি ও দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা মুহাদ্দিস শারাফাত হোসাইন।

আয়োজকরা জানান, কালবৈশাখীর মৌসুমেও বৃষ্টির কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। উল্টো টানা তীব্র তাপপ্রবাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। মাঠে রোদে পুড়ে কৃষকের ফসল নষ্ট হচ্ছে। আম-লিচুর গুটি ঝরে পড়ছে। শ্রমজীবী মানুষ রোদে বেশিক্ষণ কাজ করতে পারছেন না। এমন পরিস্থিতিতে তারা বৃষ্টির জন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনার আয়োজন করেছেন।

কলেজছাত্র রাজিব হোসেন জানান, অনেক দিন বৃষ্টি হয় না। তীব্র রোদে প্রচণ্ড গরম অনুভূত হচ্ছে। তার ওপর ঘনঘন লোডশেডিং। সব মিলিয়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে মানুষ। তাই মহান আল্লাহর কাছে বৃষ্টির জন্য নামাজ শেষে প্রার্থনা করা হয়েছে।

আগত মুসুল্লিরা বলেন, বৃষ্টিপাত না হলে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) সাহাবিদের নিয়ে খোলা ময়দানে ইসতিসকার
নামাজ আদায় করতেন। সে জন্য তারা মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজেদের পাপের জন্য তওবা এবং ক্ষমা চেয়ে দুই রাকাত নামাজ আদায় করে বৃষ্টির জন্য প্রার্থনা করেছেন। বৃষ্টি বা পানির জন্য আল্লাহ সালাতের মাধ্যমে চাইতে বলেছেন। তাই আমরা সবাই একত্র হয়ে এ নামাজ আদায় করেছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন