1. amd477271@gmail.com : admin : প্রভাত সংবাদ
  2. mdjoy.jnu@gmail.com : dainikbangladesh : Shah Zoy
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৬:১৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুমারখালীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মৌসুমী আক্তার প্রচারণায় এগিয়ে কুমারখালীতে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তুষারের ব্যাপক জনসংযোগ কুমারখালীর গড়াই রেল ব্রিজের নীচ থেকে এক অজ্ঞাত ব্যক্তির বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার মহাসড়কে দুর্ঘটনা হ্রাস ও নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে কুমিল্লা রিজিয়ন কর্তৃক বিশেষ অভিযানে প্রসিকিউশন ১৭০টি, থ্রি হুইলার আটক ৪০টি ও দেড় কাজি গাঁজা সহ গ্রেফতার ১ কুমিল্লা রিজিয়নের ২২ থানার পুলিশ সদস্যদের জন্য ওরস্যালাইন, গ্লুকোজ ও পানি দিচ্ছেন অতিরিক্ত ডিআইজি মো: খাইরুল আলম আতাউর রহমান আতা ভাই কে আবারো জয়যুক্ত করার লক্ষ্যে জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়টুকু দিয়ে কাজ করে চলেছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আব্দুল কুদ্দুস

জলাবদ্ধতায় বেহাল কুমিল্লা

  • প্রকাশিত: শনিবার, ৩ জুলাই, ২০২১
  • ১৩২ বার পড়া হয়েছে

সিরাজুুল ইসলাম চৌধুরী।। কুমিল্লা মহানগরীর দীর্ঘদিন ধরে অন্যতম প্রধান সমস্যা জলাবদ্ধতা। সুষ্ঠু পানি নিষ্কাশনের অভাবে প্রতিবছর বর্ষায় নগরীর বহুস্থান পানিতে তলিয়ে যায়।

আর এই সমস্যা সমাধানে জাপানি উন্নয়ন সংস্থার (জাইকা) অর্থায়নে নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বিগত ২০১৬ সালে ড্রেন নির্মাণের ব্যাপক মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করে।

মাইলের পর মাইল বক্সড্রেন নির্মাণও হয়েছে। কিন্তু জলাবদ্ধতার দুর্ভোগ থেকে নগরবাসীর মুক্তি মিলেনি। কারণ এখনো শেষ হয়নি বেশ কিছু স্থানে ড্রেন নির্মাণের কাজ। এই যখন অবস্থা তখন মূল প্রকল্পের মেয়াদ শেষে দুই দফা মেয়াদ বাড়ানোর সর্বশেষ সময় ৩০ জুনও শেষ হলো।

তবে এখনো নগরীর রেসকোর্স, বাদশামিয়া বাজার, শাসনগাছা, নজরুল অ্যাভিনিউ রানীরবাজার কোটবাড়ী বিশ্বরোড, নন্দনপুর, চাঙ্গীনি হয়ে পল্লি উন্নয়ন একাডেমি (বার্ড) পর্যন্ত নির্মিত ড্রেনের সমাপ্তি বাকি রয়েছে।

কোথাও কোথাও অসচেতন নগরবাসী পরিত্যক্ত ময়লা-আবর্জনা ফেলে ড্রেন বন্ধ করায় পানি নিষ্কাশনে কোনো কাজই আসছে না ড্রেনগুলো। অসমাপ্ত ড্রেনগুলোর পানি নিষ্কাশন স্বাভাবিকভাবে না হওয়ায় কোনো কোনো স্থানে উলটো রাস্তার ওপর উপচে পড়ছে পয়োনিষ্কাশনের পানি। বাসাবাড়ি, দোকানপাট, রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগ বেড়েছে নগরবাসীর।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন না হওয়ায় কবে নাগাদ ড্রেনগুলো নির্মাণ বা সংস্কার কাজ শেষ হবে তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই।

ফলে সুষ্ঠু তদারকির অভাবে জাপানি উন্নয়ন সংস্থার (জাইকা) বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয়েও জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি না পাওয়ায় নগরবাসী হতাশ হয়ে পড়েছে।

প্র/স

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন