1. amd477271@gmail.com : admin : প্রভাত সংবাদ
  2. mdjoy.jnu@gmail.com : dainikbangladesh : Shah Zoy
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ১১:৫১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কুমারখালীতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মৌসুমী আক্তার প্রচারণায় এগিয়ে কুমারখালীতে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী তুষারের ব্যাপক জনসংযোগ কুমারখালীর গড়াই রেল ব্রিজের নীচ থেকে এক অজ্ঞাত ব্যক্তির বিবস্ত্র মরদেহ উদ্ধার মহাসড়কে দুর্ঘটনা হ্রাস ও নিরাপত্তা নিশ্চিত কল্পে কুমিল্লা রিজিয়ন কর্তৃক বিশেষ অভিযানে প্রসিকিউশন ১৭০টি, থ্রি হুইলার আটক ৪০টি ও দেড় কাজি গাঁজা সহ গ্রেফতার ১ কুমিল্লা রিজিয়নের ২২ থানার পুলিশ সদস্যদের জন্য ওরস্যালাইন, গ্লুকোজ ও পানি দিচ্ছেন অতিরিক্ত ডিআইজি মো: খাইরুল আলম আতাউর রহমান আতা ভাই কে আবারো জয়যুক্ত করার লক্ষ্যে জীবনের শ্রেষ্ঠ সময়টুকু দিয়ে কাজ করে চলেছেন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আব্দুল কুদ্দুস

দেশের কয়েকটি পুরনো জেলার একটি কুষ্টিয়া। এ জেলার প্রেসক্লাবও অনেক পুরনো। ১৯৬৫ সাল থেকে কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব (কেপিসি’র) যাত্রা শুরু।

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ২৩ বার পড়া হয়েছে

 

ব্যক্তি স্বার্থে অতীতে ধারাবাহিকভাবে কতিপয় সাংবাদিক-অসাংবাদিক প্রেসক্লাবকে কুক্ষিগত করেছে। তারা অনেক পেশাদার সাংবাদিকদের সদস্য না করে, অপেশাদার, অসংবাদিক, রাজনীতিবিদ এমনকি ঘরের বউদের সদস্য করেছে।

কোন সময় ভোট না দিয়ে আবার নির্বাচন হলে টাকা দিয়ে ভোট কিনে, পবিত্র ধর্মের অপব্যবহার করে বেশ কয়েকবার এখানে অসংবাদিকরা সভাপতি-সম্পাদকও হয়েছে। এর ফলে কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব (কেপিসি) অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়েছে৷ অসাংবাদিকদের নেতৃত্বের কারণে পেশাদার সাংবাদিকরা হামলা-মামলা এবং হয়রানির শিকার হয়েছে। বার বার সাংবাদিকদের ঐক্য ভেঙেছে।

জেলা না হয় বাদই দিলাম .. এখন অনেক উপজেলা প্রেসক্লাবগুলোতেও নিজস্ব ভবন হয়েছে। আর তখনও কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব ক্ষমতাসীনদের আশ্রয়ে চলেছে।

এরপর বারবার নির্যাতিত, কারাবরণকারী সাংবাদিক নেতা রাশেদুল ইসলাম বিপ্লবের নেতৃত্বে আসে কেপিসি। প্রায় এক যুগ ধরে সাংবাদিকদের ঐক্যের প্রতীক বিপ্লব নেতৃত্ব দিচ্ছে। বিপ্লব-সোহেল রানা ও প্রয়াত পিনু-খোকনের নেতৃত্বে ধীরে ধীরে জঞ্জাল পরিষ্কার করে কেপিসি নতুন সূর্যের আলোয় আলোকিত হয়েছে।

এখন কুষ্টিয়ার নারী সাংবাদিক আফরোজা আক্তার ডিউ সারা বাংলাদেশের সাংবাদিকদের নেতৃত্ব দিচ্ছে। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)র কেন্দ্রীয় কমিটির প্রথম নারী সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়ে তিনি কুষ্টিয়াকে গর্বিত করেছেন।

এরা দীর্ঘ সময় ধরে সাংবাদিকদের বিপদে আপদে, সুখে দুঃখে পাশে থেকেছে। বর্তমান সরকারের কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে প্রায় দেড় কোটি টাকা এনে সাংবাদিকদের কল্যাণ করেছে। অসুস্থ হলে অথবা কোন সাংবাদিক মারা গেলে তার পরিবারের পাশে থেকেছে। দেশের ও দেশের উন্নয়নে স্বাধীনতার স্বপক্ষে কাজ করে চলেছে।

আবারো নির্বাচন এসেছে। আলাদা পক্ষ যখন কাদা ছোড়াছুড়ি পেরিয়ে মল ছুড়ছে, তখন বিপ্লব একঝাঁক পেশাদার সাংবাদিক নিয়ে সুস্থ ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছে। ভোটারদের পেশাগত সাংবাদিকদের পক্ষে থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

কারণ এবার কেপিসির নিজস্ব জায়গায় নিজস্ব ভবন হবে। ইতিমধ্যে জায়গা ও ভবনের ডিজাইন নিশ্চিত হয়েছে। এটা শুধু রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, সোহেল রানা, আফরোজা আক্তার ভিউ, মাহমুদ হাসানদের পক্ষেই সম্ভব .. জাহিদুজ্জামানের মত সাংবাদিকরাও যে তাদের সাথেই রয়েছেন ..

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন